Tista Tv
     

তিস্তা টেলিভিশন ও তিস্তা নিউজ বিডিতে দেশের সকল জেলা উপজেলা কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভাগীয় পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। উদ্যোমী পরিশ্রমী সৎ নির্ভীক ও দেশপ্রেমিক সাংবাদিক, যিনি সৃজনশীল মনন ও মানসে লালিত এবং বাঙালি জাতিসত্তা ও জাতীয় চেতনায় সদাজাগ্রত এবং মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা সংগ্রামের আদর্শ ও প্রেরণায় উজ্জীবিত, এমন প্রগতিশীল ভাব ও ভাবনায় দীক্ষিত সংবাদকর্মীদের নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীদের সর্বনিম্ন এক বছরের অভিজ্ঞতা ও কর্মষ্ঠ হতে হবে। যে কোনো বিষয়ে নূন্যতম স্নাতক অথবা স্নাতক অধ্যয়নরত হতে হবে। ইংরেজি সাংবাদিকতা বা গণযোগাযোগে স্নাতক অথবা অধ্যয়নরত প্রার্থীরা অধিকতর গুরুত্ব পাবেন। আপনার প্রতিষ্ঠানের বিশ্বব্যাপী প্রচারের জন্য বিজ্ঞাপন দিন। যোগাযোগঃ +8801740983512 (হটলাইন)

ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিল উপলক্ষে ছাত্র নেতাদের ঘুম হারাম

| 15-07-2019 | 438 পরিদর্শন

শরিফুল ইসলামঃ  ছাত্রদলের জন্মলগ্নের অনন্য বৈশিষ্ট্য এই যে, এই সংগঠনটি গড়ে উঠেছিল আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ‘উৎপাদনের রাজনীতি’ তত্ত্বে বিশ্বাসী হয়ে। ‘উৎপাদনমুখী শিক্ষা ব্যবস্থাই আমাদের লক্ষ্য’ স্লোগানকে ধারণ করে ছাত্রদল প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই জিয়াউর রহমানের উন্নয়নের রথে সারথির ভূমিকা পালন করে গেছে। জিয়াউর রহমান তার স্বভাবসূলভ দূরদৃষ্টি দিয়ে বুঝতে পেরেছিলেন, স্বাধীন দেশে উৎপাদন ও উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে চিকিৎসক, প্রকৌশলী, ব্যবসায়ী, আমলাসহ নানা পেশাজীবীর মতো প্রয়োজন মেধাভিত্তিক রাজনৈতিক নেতৃত্বের। তাই ‘শিক্ষা ঐক্য প্রগতি’-কে ব্রত করে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ছাত্রদল প্রতিষ্ঠায় উদ্যোগী হন। এই চাহিদা পূরণে আগামীর প্রয়োজনে জিয়াউর রহমান ১৯৭৯ সালের ১ জানুযারি গঠন করেন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। তখনকার সময়ের জিয়ার জনপ্রিয়তার জন্য অনেক তরুন অনুপ্রানিত হয়ে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলে যোগদান করেন।
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সহযোগী সংগঠন এবং বিএনপির ভ্যানগার্ডখ্যাত জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের আসন্ন সম্মেলন ছাত্রদলকে চাঙ্গা করতে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচিত করে চমক দেখাতে চায় বিএনপি। সম্মেলনে কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টি হোক, এমনটাই চান বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ বিএনপির হাইকমান্ড। নতুন কমিটিতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করার জন্য ছাত্রদলের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীদের দৌড়ঝাপ শুরু হয়ে গেছে। কাউন্সিলের মাধ্যমে হওয়ায় স্বচ্ছ ইমেজের, মেধাবী ও চৌকশ নেতৃত্ব নির্বাচিত হওয়ার বিরাট সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।
এক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি পদের জন্য সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় আছেন আল মেহেদি তালুকদার, আরাফাত বিল্লাহ খান,ফেরদৌস আলম টিটু,মিরাজ আজিম,সাগর,রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ, তানভীর রেজা,লিংকন আশরাফ,হাফিজুর রহমান, খোকন,মামুন খান,সাজিদ হাসান বাবু,এরশাদ, বাপ্পি সাধারণ সম্পাদক পদে সম্ভাব্য আলোচনায় আছেনঃ আবু তাহের, শাহনেওয়াজ, শাহিন,জুয়েল,তানজিল হাসান,রিজভী, শ্যামল, সাখাওয়াত। কাউন্সিল সম্পর্কে সভাপতি প্রার্থী সাজিদ হাসান বাবু কে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন এটা আমাদের অবিভাবক জনাব তারেক রহমানের একটি সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত এতে কেন্দ্রের সাথে তৃনমুলের যোগাযোগ বেড়েছে যা সামনের দিনগুলোতে আরো বাড়বে এবং দল সাংগঠনিক ভাবে আরো শক্তি শালী হবে
আর সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধির মাধ্যমে একটি গতিশিল আন্দোলনের মাধ্যমে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার সাথে সাথে দেশের গনতন্ত্র কে মুক্ত করা হবে।
জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কাউন্সিল উপলক্ষে এ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা এখন বেশ উৎসাহ ও উদ্দীপনাসহ নানামুখী ব্যস্ততা পার করছেন।