Tista Tv
     

তিস্তা টেলিভিশন ও তিস্তা নিউজ বিডিতে দেশের সকল জেলা উপজেলা কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভাগীয় পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। উদ্যোমী পরিশ্রমী সৎ নির্ভীক ও দেশপ্রেমিক সাংবাদিক, যিনি সৃজনশীল মনন ও মানসে লালিত এবং বাঙালি জাতিসত্তা ও জাতীয় চেতনায় সদাজাগ্রত এবং মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা সংগ্রামের আদর্শ ও প্রেরণায় উজ্জীবিত, এমন প্রগতিশীল ভাব ও ভাবনায় দীক্ষিত সংবাদকর্মীদের নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীদের সর্বনিম্ন এক বছরের অভিজ্ঞতা ও কর্মষ্ঠ হতে হবে। যে কোনো বিষয়ে নূন্যতম স্নাতক অথবা স্নাতক অধ্যয়নরত হতে হবে। ইংরেজি সাংবাদিকতা বা গণযোগাযোগে স্নাতক অথবা অধ্যয়নরত প্রার্থীরা অধিকতর গুরুত্ব পাবেন। আপনার প্রতিষ্ঠানের বিশ্বব্যাপী প্রচারের জন্য বিজ্ঞাপন দিন। যোগাযোগঃ +8801740983512 (হটলাইন)

লালমনিরহাটে বাসের চালককে পেটালেন এসিল্যান্ডের গাড়ীর চালক

| 27-08-2019 | 245 পরিদর্শন

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (এসিল্যান্ড)’র গাড়ী চালক নিয়ামুল ইসলামের বিরুদ্ধে লোকাল বাসের চালককে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় এসিল্যান্ডের গাড়ী চালকের বিচারের দাবীতে বুড়িমারী-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করেন বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। পরে বিচারের আশ্বাস পেলে শ্রমিকরা অবরোধ তুলে নেয়। আহত বাস চালক আতাউর রহমান হাতীবান্ধা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যায় জেলার ভোটমারী রেল গেট এলকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাটি নিয়ে কালীগঞ্জের এসিল্যান্ডের কোন বক্তব্য পাওয়া না গেলেও তার গাড়ী চালক নিয়ামুল ইসলাম ও কালীগঞ্জ’র ইউএনও রবিউল হাসান ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্য দিয়েছেন। আহত বাস চালক আতাউর রহমান পার্শ্ববর্তী পাটগ্রাম উপজেলার থানা পাড়া এলাকার অফুর উদ্দিনের পুত্র বলে জানা গেছে।

স্থানীয় শ্রমিকরা জানান, ওই এলাকা একটি সড়ক দূর্ঘটনার কারণে যানজট সৃষ্টি হয়। এ সময় লালমনিরহাট থেকে বুড়িমারী গামী কেবি পরিবহন নামে এক লোকাল বাসের চালক আতাউর রহমান তার গাড়ীটি যানজটের মধ্য দিয়ে নিয়ে আসতে চেষ্টা করেন। এ সময় কালীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (এসিল্যান্ড)’র গাড়ীতে ধাক্কা লাগে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে এসিল্যান্ডের গাড়ী চালক নিয়ামুল ইসলাম কেবি পরিবহনের চালক আতাউর রহমানকে মারধর করেন। ওই সময় এসিল্যান্ড আবু সাঈদ গাড়ীতে ছিলেন না। তবে গাড়ীতে কয়েকজন পিয়ন ছিলেন। পরে আহত চালক আতাউর রহমানকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাতীবান্ধা হাসপাতালে ভর্তি করায়। এ ঘটনার প্রতিবাদে এবং এসিল্যান্ডের গাড়ী চালকের বিচারের দাবীতে সোমবার রাতে বুড়িমারী-ঢাকা মহাসড়কের হাতীবান্ধা শহরে সড়ক অবরোধ করেন বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। পরে হাতীবান্ধা থানার ওসি ওমর ফারুক উপস্থিত হয়ে বিচারের আশ্বাস দিলে শ্রমিকরা অবরোধ তুলে নেয়।

হাতীবান্ধা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোজাম্মেল হক ভুট্ট জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যার মধ্যে যদি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা না হয়। তাহলে আমরা আবারও আন্দোলনে যাবে।

এ বিষয়ে একাধিক বার যোগাযোগ করা হলেও কালীগঞ্জের এসিল্যান্ড আবু সাঈদের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে তার গাড়ী চালক নিয়ামুল ইসলাম বলেন, কালীগঞ্জ ইউএনও’র নির্দেশে কয়েকজন পিয়নসহ ভোটমারী এলাকায় বালু উত্তোলণের খোঁজ খবর নিতে যাই। গাড়ীতে এসিল্যান্ড ছিলেন না। এ সময় কেবি পরিবহন আমার গাড়ীকে ধাক্কা দিলে গাড়ীর বেশ ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে।

হাতীবান্ধা থানার ওসি ওমর ফারুক জানান, শ্রমিকদের অভিযোগ কালীগঞ্জের এসিল্যান্ড আবু সাঈদ এর গাড়ী চালক নিয়ামুল ইসলাম একটি লোকাল বাসের চালককে মারধর করেছে। এ ঘটনায় শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করেন। তবে তাদের বিচারের আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেয়।

কালীগঞ্জ’র ইউএনও রবিউল হাসান জানান, আমি শুনেছি কালীগঞ্জের এসিল্যান্ডের গাড়ী চালকের সাথে কেবি পরিবহনের চালকের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়েছে। এসিল্যান্ডের গাড়ীর কোনো ক্ষয়-ক্ষতি হয়নি। তারপরও আমি শ্রমিকদের অভিযোগ করতে বলেছি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করব।

হাতীবান্ধা’র ইউএনও সামিউল আমিন জানান, কালীগঞ্জের এসিল্যান্ডের সাথে আমার কথা হয়েছে। তার গাড়ী ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তবে বাসের চালককে মারধর করা হয়নি বলে এসিল্যান্ড আমাকে জানান।