Tista Tv
     

তিস্তা টেলিভিশন ও তিস্তা নিউজ বিডিতে দেশের সকল জেলা উপজেলা কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভাগীয় পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। উদ্যোমী পরিশ্রমী সৎ নির্ভীক ও দেশপ্রেমিক সাংবাদিক, যিনি সৃজনশীল মনন ও মানসে লালিত এবং বাঙালি জাতিসত্তা ও জাতীয় চেতনায় সদাজাগ্রত এবং মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা সংগ্রামের আদর্শ ও প্রেরণায় উজ্জীবিত, এমন প্রগতিশীল ভাব ও ভাবনায় দীক্ষিত সংবাদকর্মীদের নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীদের সর্বনিম্ন এক বছরের অভিজ্ঞতা ও কর্মষ্ঠ হতে হবে। যে কোনো বিষয়ে নূন্যতম স্নাতক অথবা স্নাতক অধ্যয়নরত হতে হবে। ইংরেজি সাংবাদিকতা বা গণযোগাযোগে স্নাতক অথবা অধ্যয়নরত প্রার্থীরা অধিকতর গুরুত্ব পাবেন। আপনার প্রতিষ্ঠানের বিশ্বব্যাপী প্রচারের জন্য বিজ্ঞাপন দিন। যোগাযোগঃ +8801740983512 (হটলাইন)

ভয়ংকর রূপে তিস্তা, এলাকা ছাড়তে মাইকিং

| 14-07-2019 | 292 পরিদর্শন
লালমনিরহাটে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। তিস্তা, ধরলার পানি আরও বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। শুক্রবার সকাল ৯টায় ডালিয়া ব্যারাজ পয়েন্টে তিস্তার পানি বিপদসীমার ২৪ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও শনিবার সকাল ৯টায় তা বেড়ে বিপদসীমার ৫০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
পানির এই প্রবল চাপের কারণে তিস্তা ব্যারেজের বাইপাস ফ্ল্যাট গেট স্বাভাবিকভাবে খুলে যাওয়ার কথা থাকলেও তা খোলেনি। এ কারণে গতকাল রাত থেকেই ব্যারেজ এলাকার লোকজনকে বাড়িঘর ছেড়ে যাওয়ার জন্য মাইকিং করা হচ্ছে বলে জেলা প্রশাসক মো. আবু জাফর জানিয়েছেন।
ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী হাফিজুর রহমান জানান, শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে তিস্তা ভয়ংকর রূপ ধারণ করায় তিস্তা ব্যারেজ এলাকা ও ফ্লাট বাইপাসের উজানে পানি উন্নয়ন বোর্ড রেড এলার্ট জারি করে মাইকিং করেছে।
এদিকে, হাতীবান্ধা উপজেলার একটি বেড়িবাঁধ ভেঙে উপজেলা শহরের কাছাকাছি পানি ঢুকে পড়েছে।
অপরদিকে, শুক্রবার সকাল ৯টায় ধরলার পানি বিপদসীমার ৯ সেন্টিমিটার নীচ দিয়ে প্রবাহিত হলেও শনিবার সকাল ৯টায় বিপদসীমার ৪৬ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
এতে করে জেলার ৫টি উপজেলার ২০টি ইউনিয়নের অন্তত ৪০ হাজার পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। জলমগ্ন হয়েছে নতুন নতুন এলাকা, পানি ঢুকে পড়ছে লোকালয়ে। ফলে দুর্ভোগে পড়েছে নিম্ন আয়ের মানুষজন। শুকনো খাবার ও বিশুদ্ধ পানির অভাবে পড়েছেন দুর্গত এলাকার মানুষ। চরাঞ্চল ও নিম্নাঞ্চলের কাঁচা সড়কগুলো জলাবদ্ধতা দেখা দেয়ায় ব্যাহত হচ্ছে যোগাযোগ।
স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জানান, তিস্তার চরাঞ্চল ও নদী তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলের বাড়িঘর, রাস্তাঘাটে আগের জমে পানি আরও বেড়ে শুক্রবার বিকেল থেকে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে।
লালমনিরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আহসান কাবীব জানান, বন্যা মোকাবেলা জেলা প্রশাসনের কাছে পর্যাপ্ত ত্রাণ রয়েছে। দুর্গত এলাকার লোকজনকে দ্রুত সরিয়ে নিয়ে আসার জন্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপণা কমিটিগুলোকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে।